Sunday , November 18 2018
Home / জাতীয় / ২০৩০ সালের মধ্যে সবার জন্য নিরাপদ পানিঃ প্রধানমন্ত্রী

২০৩০ সালের মধ্যে সবার জন্য নিরাপদ পানিঃ প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে সবার জন্য নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে চাই। বিশ্বব্যাপী নিরাপদ পানির সহজলভ্যতা দিন দিন সংকুচিত হলেও বাংলাদেশে ৯৮ ভাগ মানুষ নিরাপদ পানির আওতায় এসেছে।

তিনি নগরের পানি সরবরাহ ব্যবস্থা আমূল পাল্টে দেয়ার কথা জানিয়ে বলেন, ৪ বছরের মধ্যে মাটির নিচ থেকে পানি তুলে সরবরাহ বন্ধ করা হবে। ভূ-উপরিস্থ পানিই শতভাগ ব্যবহার করা হবে। ঢাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন করে খাল খনন করা হচ্ছে। আর পুরাতন খালগুলোর সংস্কারের পাশাপাশি জলাধার সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এছাড়া পানি সম্পদের সমন্বিত ব্যবহারের জন্য ১০০ বছরের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

আজ শনিবার সকালে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে ঢাকা পানি সম্মেলন-২০১৭’এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। সম্মেলনে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খোন্দকার মোশররফ হোসেন, পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বাস্তবায়ন প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদের স্বাগত বক্তব্যের পর শিল্পকলা একাডেমির শিক্ষার্থীরা থিম সং পরিবেশন করে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের উন্নয়নের ওপর একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। পানি সম্পদের সঠিক ব্যবহার ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ে আলোচনা এবং পারস্পরিক সম্পর্ক ও সহযোগিতা জোরদার করার লক্ষ্যে বিশ্বের ২৮টি দেশের অংশগ্রহণে আজ থেকে ঢাকায় দুই দিনের এই ‘ঢাকা পানি সম্মেলন’ শুরু হয়েছে।

সারা বিশ্বে ১৬০ কোটি মানুষ নিরাপদ পানির সংকটে ভূগছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিরাপদ পানি নিশ্চিত করতে আমাদের সরকার ইতিমধ্যে বিশেষ সাফল্যের সাক্ষর রেখেছে। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ২০১৫ সালের মধ্যে শতকরা ৮৪ শতাংশ মানুষের জন্য নিরাপদ পানি নিশ্চিত করার লক্ষ্য ছিল। কিন্তু এসেছে ৮৭ শতাংশ মানুষ। শহর এলাকায় শতকরা ৯৮ ভাগ মানুষ নিরাপদ পানির সুবিধা পাচ্ছে। অন্যদিকে শতকরা ৯৯ শতাংশ মানুষ নিরাপদ পয়ঃনিষ্কাষণ সুবিধার আওতায় এসেছে। এসডিজি নির্ধারিত সময় সীমা ২০৩০ সালের আগেই সরকার শতভাগ মানুষকে নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে চায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সুপেয় পানির জন্য সারাবিশ্বে নানা ধরনের তৎপরতা চালানো হলেও এখন পর্যন্ত ১০০ কোটি মানুষের সুপেয় পানির প্রাপ্যতা নিশ্চিত করা যায়নি।আমাদের ধারাবাহিক সচেতনতামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি অনিরাপদ পানিজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পেয়েছে।

টপারবিডি/ম আ রু

আরও পড়ুন

আগামী নির্বাচনে মহাজোটের সঙ্গে থাকবো কিনা সেটা পরিস্থিতিই বলে দেবে

টপারবিডি ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ বলেছেন, আগামী নির্বাচনে …