Tuesday , October 26 2021
Home / আজকের খবর / বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা টিএমএসএস-এ ৩টি পদে মোট ১ হাজার কর্মীর চাকরির সুযোগ

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা টিএমএসএস-এ ৩টি পদে মোট ১ হাজার কর্মীর চাকরির সুযোগ

চাকরি ডেস্কঃ বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা টিএমএসএস-এ তিনটি পদে মোট ১ হাজার কর্মী নিয়োগ করা হবে। প্রতিষ্ঠানটি পত্রিকায় এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই নিয়োগের বিষয়টি জানিয়েছে। প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিটি ১৬ নভেম্বর প্রথম আলোর ১১ পৃষ্ঠায় ছাপা হয়েছে।
কোন পদে কতজন নিয়োগ:

⇒প্রতিষ্ঠানটিতে শাখা ব্যবস্থাপক (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদে ২০০ জন,

⇒শাখা হিসাবরক্ষক কাম-কম্পিউটার অপারেটর (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদে ৩০০ জন এবং

⇒ফিল্ড সুপারভাইজার (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদে ৫০০ জনকে নিয়োগ করা হবে।

♦আবেদনের যোগ্যতা:

শাখা ব্যবস্থাপক (মাইক্রোফাইন্যান্স)বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, শাখা ব্যবস্থাপক (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থীদের যেকোনো বিষয়ে স্নাতকোত্তর/সমমান পাস হতে হবে। এ পদের প্রার্থীদের বেসরকারি সংস্থায় ঋণ কর্মসূচিতে কাজ করার বাস্তব অভিজ্ঞতাসম্পন্ন স্থানীয় প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। মোটরসাইকেল চালনায় এবং কম্পিউটারে কাজ করায় পারদর্শী হতে হবে। বয়স হতে হবে সর্বোচ্চ ৪০ বছর।

শাখা হিসাবরক্ষক কাম-কম্পিউটার অপারেটর (মাইক্রোফাইন্যান্স)ঃ এই পদের প্রার্থীদের বাণিজ্যে স্নাতক/বিবিএ (ফিন্যান্স/অ্যাকাউন্টিং)/সমমান পাস হতে হবে। এ পদের প্রার্থীদের কম্পিউটার পরিচালনায় এমএস অফিস ও ইন্টারনেট ব্রাউজিং কাজে দক্ষতাসহ টাইপিং স্পিড ইংরেজিতে ৪০ এবং বাংলায় ৩০ থাকতে হবে। অভিজ্ঞতাসম্পন্ন স্থানীয় প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। বয়স হতে হবে সর্বোচ্চ ৩৫ বছরের মধ্যে।

ফিল্ড সুপারভাইজার (মাইক্রোফাইন্যান্স)ঃ এই পদের প্রার্থীরা স্নাতক/সমমান পাস হলেই আবেদন করতে পারবেন। মাইক্রোফাইন্যান্স কর্মসূচিতে কাজের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন/স্নাতকোত্তর ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন স্থানীয় প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। মাইক্রোফাইন্যান্স কর্মসূচিতে মাঠপর্যায়ে বাইসাইকেল/মোটরসাইকেল চালিয়ে ঋণ বিতরণ ও আদায় কাজে সম্পৃক্ত থাকতে হবে। বয়স হতে হবে সর্বোচ্চ ৩৫ বছর।

এসব পদে বাংলাদেশের যেকোনো জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। তবে চূড়ান্তভাবে নিয়োগপ্রাপ্তরা ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কর্মসূচির বাস্তবায়ন এলাকায় কাজ করতে হবে।

আবেদন নিয়োগ প্রক্রিয়া: আগ্রহী প্রার্থীদের পরিচালক (এইচআর-এম অ্যান্ড অ্যাডমিন), টিএমএসএস বরাবর আবেদনপত্র, পূর্ণাঙ্গ জীবনবৃত্তান্ত (মোবাইল নম্বরসহ) সব শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতার সনদপত্র ও জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত অনুলিপি এবং সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ৩ কপি রঙিন ছবিসহ নির্ধারিত তারিখের মধ্যে সব পদের প্রার্থীদের আবেদনপত্র বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত নির্ধারিত ঠিকানায় পৌঁছাতে হবে।

সব পদের ক্ষেত্রে খামের ওপর আবেদনকৃত পদের নাম ও প্রার্থী যে বিভাগে কাজ করতে ইচ্ছুক তা উল্লেখ করতে হবে। টিএমএসএসের পরিচালক (এইচআরএম অ্যান্ড অ্যাডমিন) শাহ্‌জাদী বেগম জানান, প্রার্থীদের আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই করে প্রথমে প্রাথমিক বাছাই করা হবে। এরপর শাখা ব্যবস্থাপক (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থীদের ৫০ নম্বরের লিখিত ও ৫০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। শাখা হিসাবরক্ষক কাম-কম্পিউটার অপারেটর (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থীদের ৫০ নম্বরের লিখিত, ২০ নম্বরের ব্যবহারিক ও ৩০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। ফিল্ড সুপারভাইজার (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থীদের শুধু মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। এসব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের এরপর পাঁচ দিনের প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে হবে। এই প্রশিক্ষণে যাঁরা মোটামুটি ভালো করবে, তাঁদের চূড়ান্তভাবে নিয়োগ করা হবে বলে জানান শাহ্‌জাদী বেগম।

আবেদনের সময়সীমাঃ আবেদন করা যাবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।
বেতন ভাতা প্রশিক্ষণ: চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত একজন শাখা ব্যবস্থাপক (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থী শিক্ষানবিশকালে ২১ হাজার ৩২০ এবং শিক্ষানবিশকাল শেষে ২৩ হাজার ৯৪৪ টাকা, শাখা হিসাবরক্ষক কাম-কম্পিউটার অপারেটর (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থী শিক্ষানবিশকালে ১৭ হাজার ২৫০ টাকা ও শিক্ষানবিশকাল শেষে ১৯ হাজার ২৭৫ টাকা এবং ফিল্ড সুপারভাইজার (মাইক্রোফাইন্যান্স) পদের প্রার্থী শিক্ষানবিশকালে ১৬ হাজার ১২০ টাকা ও শিক্ষানবিশকাল শেষে ১৮ হাজার ১০৪ টাকা বেতন দেওয়া হবে। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের সময় প্রশিক্ষণ ফি বাবদ ৫ হাজার টাকা জমাদানপূর্বক মৌলিক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে হবে। প্রশিক্ষণের তারিখ, সময় ও স্থান পরবর্তী সময়ে এসএমএসের মাধ্যমে জানানো হবে। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে পারেন: www.tmss-bd.org । ফোন: ০৫১-৬৫৭১৯, ৭৮৫৬৯।

 

Check Also

রাষ্ট্রপতি পদটিকে এত গুরুত্ব দেয় কেন রাজনীতি দলগুলো?

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন। বর্তমান রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আবদুল হামিদের …