Sunday , November 18 2018
Home / বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি / DSLR কেনার কথা ভাবছেন? তাহলে দেখেনিন ২০১৭ সালের সেরা ১০টি ডিএসএলআর ক্যামেরা

DSLR কেনার কথা ভাবছেন? তাহলে দেখেনিন ২০১৭ সালের সেরা ১০টি ডিএসএলআর ক্যামেরা

ফটোগ্রাফি এখন অনেকেরই শখ এবং পেশা আবার অনেকেই এই শখে বা পেশায় নামার চিন্তা ভাবনা করছেন। আর সবার আগেই চলে আসে ক্যামেরার কথা। সবারই একই চিন্তা, কোন ক্যামেরাটা কেনা যায়? কোন ক্যামেরাটা দিয়ে ভালভাবে কাজ করা যাবে। যদিও সৃষ্টিশীল এধরনের কাজে ক্যামেরার পেছনের মানুষটার উপর বেশীরভাগ নির্ভর করে কিন্তু উপযুক্ত ইকুইপমেন্ট ছাড়া প্রফেশনাল কাজ করা যায় না। তাই আমরা ২০১৭ সালের ১০টি সেরা ক্যামেরার একটি লিস্ট বানালাম যেটা হয়তো কাজে আসবে আপনার।

Canon EOS 5D Mark IV

গত বছর এই ক্যামেরাটা বেশ ভাল সাড়া ফেলেছিল যখন বের হয়েছিল। ফুল ফ্রেমের এই ক্যামেরাটির পারফরম্যান্স অসাধারন এবং আমাদের এক নম্বর পছন্দ ফটোগ্রাফি এবং এমনকি ভিডিও করার ক্ষেত্রেও। এই ক্যামেরার অতোম্যাটিক ফোকাসিং সিস্টেমটি অসাধারন। আর আছে ফোর-কে রেজ্যুলেশনে ভিডিও করার ফিচার যা এখন অনেকটাই অতি জরুরী একটি ব্যাপার হয়ে গেছে বিশেষ করে যারা ভিদিওগ্রাফি পছন্দ করেন। 61-Point অটোফোকাস এই ক্যামেরাকে অনেক বেশী এডভান্সড করে ফেলে আর বিল্ট কোয়ালিটিও অসাধারন। প্রফেশনাল ফটোগ্রাফি এবং সেমি-প্রফেশনাল ভিডিওগ্রাফি – দুটো একসাথেই যারা করতে চান, তাদের জন্য এই ক্যামেরাটি।

Specification:

 Sensor: Full-frame CMOS

Megapixels: 30.4MP

Autofocus: 61-point AF, 41 cross-type

Screen type: 3.2-inch touchscreen, 1,620,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 7fps

Movies: 4K

User level: Expert

Price: 1,21,153 TK

 

২। Nikon D810

শুধুমাত্র ফটোগ্রাফির জন্য আমার বরাবরই নিকন এর ক্যামেরা পছন্দ। আর নিকনের সেরা ক্যামেরাগুলোর একটা হলো এই D810। এটিও একটি ফুল ফ্রেম ক্যামেরা। ৩৬.৩ মেগাপিক্সেলের এই ক্যামেরাটি একটু পুরোনো মডেলের হলেও এখনও এটি বেশ উল্লেখযোগ্য একটি ক্যামেরা কিন্তু 5D এর মত দামী না। প্রফেশনাল ক্যামেরা হিসেবে এটি আসলে অনেক সস্তাই বলা চলে। যদি আপনার খেলাধুলা, ওয়াল্ডলাওফ ফটোগ্রাফি, একশন – এধরনের ফটোগ্রাফি পছন্দ হয়ে থাকে, তাহলে এই ক্যামেরা ছাড়া আপনার গতি নেই। অসাধারন ছবির কোয়ালিটি এই ক্যামেরার অন্যতম বৈশিষ্ট্য। তবে যাদের ফটোগ্রাফির পাশাপাশি ভিডিওগ্রাফি করারও ইচ্ছা আছে, তাদের জন্য এই ক্যামেরা না।






Specification:

Sensor: Full-frame CMOS

Megapixels: 36.3MP

Autofocus: 51-point AF, 15 cross-type

Screen type: 3.2-inch, 1,229,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price:1,80,000 TK

 

৩। Canon EOS 5DS

৫০.৬ মেগাপিক্সেলের এই ক্যামেরাটী এই মুহুর্তে সর্বোচ্চ রেজুলেশনের ক্যামেরা বলা যায় এবং এটি একটি ফুল-ফ্রেম ক্যামেরা। এই ক্যামেরাকে ইদানীং ফুল ফ্রেম ক্যামেরার স্ট্যান্ডার্ড বা আদর্শ ধরা হচ্ছে কিন্তু এটাকে একেবারে ১০০ ভাগ পারফেক্ট বলা যাবে না। এই ক্যামেরাতে নেই কোন Wi-fi ফাংশন বা ফোর-কে ভিডিও রেকর্ডিং আর বিশাল সাইজের ছবির জন্য দরকার অনেক বড় মেমোরী কার্ড এবং ভাল মানের মেমরী কার্ড। তাছাড়া এত বড় আকারের ছবিগুলো প্রসেস করার জন্য আরো দরকার খুব ভাল মানের কম্পিউটার। তাই এই ক্যামেরাটা কেনার সময় সবাই ২য় বার ভাবে কারণ খরচ বেড়ে যায়। তবে খরচ যাই বাড়ুক না কেন, ইমেজ কোয়ালিটি যদি একজন ফটোগ্রাফারের সবকিছু হয়, তাহলে সবকিছুকে মাফ করা যায়। এই ক্যামেরার রয়েছে অসাধারন ডাইনামিক রেঞ্জ অর্থাৎ সাদা এবং কালোর ক্ষেত্রে এই ক্যামেরা অনেক বেশী ডিটেইল ধারন করতে পারে যা অন্যান্য ক্যামেরা করতে পারেনা।

Specification:

Sensor: Full-frame CMOS

 Megapixels: 50.6MP

Autofocus: 61-point AF, 41 cross-type

Screen type: 3.2-inch, 1,040,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

 Price:3,17,000 TK

 

 ৪। Nikon D-500 

আমার ব্যাক্তিগত পছন্দের একটি ক্যামেরা এই ডি-৫০০। এই ক্যামেরাটাতে একটি প্রফেশোনাল ক্যমেরার সমস্ত ফিচারই রয়েছে কিন্তু আকার হয়েছে ছোট এবং একটু হালকা আর ঠিক সেই কারনেই এটি আমার পছন্দের তালিকায় রয়েছে ফটোগ্রাফির জন্য। ছোট হলেও এই ক্যামেরাটির বিল্ট কোয়ালিটি অসাধারন। এই ক্যামেরাটি ২০.৯ মেগাপিক্সেলের এবং এটির রয়েছে APS-C সেন্সর যা ফুল ফ্রেম থেকে একটু ছোট। এই ক্যামেরার রয়েছে 153-Point অটোফোকাস সিস্টেম যা এক কথায় অসাধারন এবং এই মুহুর্তে বিশ্বের সেরা অটোফোকাস সিস্টেম। যেকোন ধরনের ফটোগ্রাফির জন্য এই ক্যামেরাটি বেশ ভাল একটি পছন্দ। তবে, ভিডিওর জন্য না।

Specification:

 Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 20.9MP

Autofocus: 153-point AF, 99 cross-type

Screen type: 3.2-inch tilt-angle touchscreen, 2,359,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 10fps

Movies: 4K

 User level: Expert

 

 ৫। Canon EOS 7D Mark II

এই ক্যামেরাটি আমি অনেকদিন ধরেই ব্যবহার করছি। এর আগের ভার্সনও ব্যবহার করেছি অনেকদিন। ডিউরেবিলিটি বা বিল্ড কোয়ালিটির দিক থেকে এই ক্যামেরার কোন কম্পিটিটর নেই। এই ক্যামেরাকে পুরোপুরি প্রফেশনাল ক্যামেরা বলা যায় না তবে সেই তুলনায় প্রায় সব ধরনের এডভান্সড ফিচারই আছে এই ক্যামেরায়। স্পোর্টস বা একশন ফটোগ্রাফির জন্য এই ক্যামেরাটা বেশ পপুলার আর দাম কম হবার কারনে সাধারন ব্যবহারকারীদের কাছে এটি খুবই পছন্দের। এই ক্যামেরাটি ওয়েদারপ্রফ অর্থাৎ যেকোন ধরনের আবহাওয়াতে এটি কাজ করতে সক্ষম। এটির সেন্সর ফুল ফ্রেম না কিন্তু এতে আছে ডুয়েল পিক্সেল হাইব্রিড অটোফোকাস সিস্টেম।

Specification:

Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 20.2MP

Autofocus: 65-point AF, 65 cross-type

Screen type: 3.0-inch, 1,040,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 10fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price:70,000 TK

 

Nikon D-3300

নিকনের ডি৩৩০০ মডেলের ক্যামেরাটি নতুন ফটোগ্রাফারদের জন্য খুবই ভালো একটি ক্যামেরা। ২৪ দশমিক ২ মেগাপিক্সেলের এই ক্যামেরা নিকনের অন্যান্য ডিএসএলআর ক্যামেরার মতোই কাজ করে। তবে দাম তুলনামূলকভাবে কম। তবে এর দুর্বলতার মধ্যে রয়েছে এতে কোনো আর্টিকুলেটেড টাচ-স্ক্রিন ডিসপ্লে বা ওয়াই-ফাই সংযোগ নেই।

Specification:

Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 24.2 MP

Screen type: 3.00-inch, 9,21,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price: 31290 TK

 

. Canon EOS 750D

উচ্চমাত্রার আইএসও সেন্সিটিভিটির জন্য দারুণ ঝকঝকে ছবি তোলা যায় এই ক্যামেরা দিয়ে। এর মেগাপিক্সেল ২৪ দশমিক ২। ক্যানন ৭৫০ডি মডেলের ক্যামেরাটিতে রয়েছে উন্নতমানের অটোফোকাস এবং এক্সপোজার মিটারিং সিস্টেম। আরো আছে বিল্ট-ইন ওয়াই-ফাই ও এনএফসি।

Specification:

Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 24.2 MP

Screen type: 3.0-inch, 10,40,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price: 45,290 TK

 

. Nikon D-5500:

ক্যাননের ৭৫০ডি মডেলের ক্যামেরার সঙ্গে নিকন ডি৫৫০০ ক্যামেরার তুলনা চলে। নিকনের ডি৩০০০ সিরিজের ক্যামেরাগুলো তৈরি করা হয়েছিল নতুন ফটোগ্রাফারদের হাতে কম দামে ডিএসএলআর ক্যামেরা তুলে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে। এতে রয়েছে টাচস্ক্রিন কন্ট্রোল, বিল্ট-ইন ওয়াই-ফাই। এর মেগাপিক্সেল ২৪ দশমিক ২।

Specification:

Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 24.2 MP

Screen type: 3.2-inch, 10,40,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price:42990 TK

 

. Canon EOS 760D(রেবেল টি৬এস)

ক্যানন এর ইওএস ৭০০ডি ক্যামেরার পরবর্তী দুটি সংস্করণ হচ্ছে ইওএস ৭৫০ডি এবং ইওএস ৭৬০ডি। ক্যামেরা দুটোর কারিগরী দিক কাছাকাছি হলেও ইওএস ৭০০ডি এর তুলনায় এই ক্যামেরা দুটির ভিন্নতা রয়েছে বাহ্যিক দিক থেকে। ক্যামেরার বডিতে রয়েছে থাম্বহুইল ও টপ প্লেট এলসিডি ডিসপ্লে। এ ধরনের ফিচারগুলো ক্যাননের উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরাগুলোতেই পাওয়া যায়। ওজনেও ইওএস ৭৫০ডি ক্যামেরাটি তুলনামূলকভাবে হালকা।

Specification:

Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 24.2 MP

Screen type: 3.0-inch, 10,40,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price:51790 TK

 

১০.Nikon D-5300

নিকনের ডি৫৩০০ ক্যামেরায় ২৪ দশমিক ২ মেগাপিক্সেলের সেন্সর সাথে রয়েছে আইডেন্টিকাল মেক্সিমাম আইএসও ২৫৬০০ সেন্সিটিভিটি। এই ক্যামেরার টাচস্ক্রিন খুব একটা সুবিধার না হলেও এতে আছে জিপিএস।

Specification:

Sensor: APS-C CMOS

Megapixels: 24.2 MP

Screen type: 3.2-inch, 10,37,000 dots

Maximum continuous shooting speed: 5fps

Movies: 1080p

User level: Expert

Price: 37810 TK

 

আরও পড়ুন

রাতে মোবাইল পাশে নিয়ে ঘুমানোটা কতটা বিপজ্জনক দেখুন

অনলাইন ডেস্ক: সাবধান! মাথার কাছে মোবাইল ফোনটা চালু রেখে কখনও ঘুমোতে যাবেন না।জরুরি এসএমএস, হোয়াটসঅ্যাপ …